নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
১০ মে ২০২১, ০১:০২ অপরাহ্ন
/ পরীক্ষা- ফলাফল
করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক পরীক্ষাগুলো অনলাইনে নেওয়ার পক্ষে মত দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)। তবে শিক্ষার্থী কিংবা সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল না চাইলে অনলাইনে পরীক্ষা আয়োজন করা বিস্তারিত...
গুচ্ছ পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য ১ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা প্রাথমিক আবেদন করতে পারবেন। পরীক্ষা শুরু হবে ১৯ জুন থেকে। যেসব শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম যোগ্যতা থাকবে তারা
গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়নি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)। আলাদাভাবে আগামী ১০ জুন ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের
আগের নিয়মেই এবারও (২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ) ভর্তি পরীক্ষা নেবে দেশের মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজগুলো। স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে কেন্দ্রীয়ভাবে আগামী ২ এপ্রিল দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস এবং ৩০ এপ্রিল
দেশের তিন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চুয়েট, কুয়েট ও রুয়েটকে নিয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করতে চায় বুয়েট। দুটি ধাপে ভর্তি পরীক্ষা হবে। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) এ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) অনার্স চতুর্থ বর্ষের (দ্বিতীয় সেমিস্টার) ও মাস্টার্স (দ্বিতীয় সেমিস্টার)-এর চূড়ান্ত পরীক্ষা আগামী ২০ ডিসেম্বর শুরু হবে। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের এক জরুরি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো
দেশের ১৯টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের সশরীরের অংশগ্রহণ করতে হবে। মঙ্গলবার (০১ ডিসেম্বর) সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও
করোনার মধ্যে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া সম্ভব না হওয়ায় আগের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এইচএসসি’র ফলাফল নির্ধারণের ঘোষণা দেয়া হয়েছে গেল সপ্তাহে। তবে এই পদ্ধতি উত্তীর্ণের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রক্রিয়া কী হবে
বিশেষ প্রতিবেদক।। সমন্বিত বা কেন্দ্রীয় নয়, এখন থেকে চারটি ধাপে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার আয়োজন করা হবে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে। এতে দেশের ৩৪টি বিশ্ববিদ্যালয় অংশগ্রহণ করবে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউজিসির চেয়ারম্যান
ইবি প্রতিনিধি।। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির ১ম ধাপে অপেক্ষমান তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের ভর্তি শেষে ৩৭২টি আসন খালি রয়েছে। ২য় ধাপের অপেক্ষমান তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীরা বাকি