শরীয়তপুরে শিক্ষা কর্মকর্তার যোগসাজসে অবৈধ নিয়োগ পত্রে শিক্ষক এমপিও ভুক্ত!

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
মঙ্গলবার, ১৬ মে, ২০২৩, ৯:৩৮ অপরাহ্ন

শরীয়তপুর জেল ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার যোগসাজসে অবৈধ নিয়োগ পত্র দিয়ে এমপিও ভ‚ক্ত শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছে জাজিরা উপজেলা সেনের চর ইউনিয়নের চোকদার মেমোরিয়াল একাডেমীর ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম।

২০২০ সালে অত্র বিদ্যালয় এমপিও ভুক্ত হওয়ার পর ঐ বিদ্যালয়ের সভাপতি সি.এম ইদ্রিস আলী ও জাজিরা উপজেলার তৎকালিন শিক্ষা অফিসার মোজাম্মেল হোসেন(রাজু)শিক্ষা নিতিমালা ও আইনের প্রতি তোক্কা না করে মোটা অংকের অথের্র বিনিময়ে অবৈধ নিয়োগ পত্র প্রস্তুত করে, মোঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ মাসুম কবির, ও মোঃ মহিউদ্দিন ইলিয়াছ নামে তিন শিক্ষককে ২০১৪ সালের নিয়োগ পত্র দেখিয়ে এমপিও ভুক্ত, নিয়োগ ব্যবস্থার চেষ্টা করে।

অবৈধ প্রক্রিয়ায় নিয়োগ ব্যবস্থার বিষয় নিয়ে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর শরীয়তপুর জেলার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসার মোঃ এমারত হোসেন মিয়া তদন্ত স্বাপেক্ষে নিয়োগ ব্যবস্থা বাতিল করেন।

এ ব্যপারে চোকদার মেমোরিয়াল একাডেমীর বর্তমান প্রধান শিক্ষক কে.এম আতাউর রহমান,এর কাছে  জানতে চাইলে বিষয়টি এরিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকরেন।

চোকদার মেমোরিয়াল একাডেমীর সাবেক প্রধান  শিক্ষক মোঃ তাজুল ইসম, এর কাছে এব্যপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন ২০১৭ সাল থেকে প্রধান শিক্ষ পদে কর্মরত ছিলাম এবং বিদ্যালয়টি আমার পাঠানো আবেদনের ভিত্তিতে ২০১৯ সালে এপিও ভূক্ত হয়। অত্র বিদ্যালয় এমপিও ভুক্ত হওয়ার পর সভাপতি সি এম ইদ্রিস আলী, সাবেক উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মোজাম্মেল হোসেন (রাজু) বিদ্যালয়ের কর্মরত শিক্ষ ও কর্মচারীদের বাদ দিয়ে মোটা অংকের আর্থিক সুবিধা নিয়ে জাল নিয়োগ পত্র প্রস্তত করে, ঐ নিয়োগ পত্রে আমাকে স্বাক্ষর করতে বলেন, আমি জাল কাগজ পত্রে স্বাক্ষর করতে অনিচ্ছা প্রকাশ করলে আমাকে চাকুরী চুত্ব করেন।

২০২২ সালে চোকদার মোমোরিয়াল একাডেমীর বর্তমান প্রধান শিক্ষক কে.এম আতাউর রহমান ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সি.এম ইদ্রিস আলী এবং বর্তমান জাজিরা উপজেলা শিক্ষা অফিসার সিরাজ-উদ-দৌলা ও শরীয়তপুর জেলা শিক্ষা অফিসার শ্যামল চন্দ্র শর্মা আর্থিক সুবিধা নিয়ে অভিযুক্ত ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম কে অবৈধ নিয়োগ পত্র প্রস্তুত করে পুনরায় এমপিও ভুক্ত শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দানের ব্যবস্থা করেন।

জাজিরা উপজেলা শিক্ষা অফিসার সিরাজ-উদ-দৌলা’র কাছে এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে একটি তদন্ত প্রতিবেদন জেলা শিক্ষা অফিসে পাঠিয়ে দিয়েছি নিয়োগ শতভাগ স্বচ্ছ। শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ে যে ব্যাক্তি অভিযোগ করেছে সে হিংসাত্মক ভাবে করেছে।

শরীয়তপুর জেলা শিক্ষা অফিসার শ্যামল চন্দ্র শর্মার কাছে এ ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জাজিরা উপজেলার চোকদার মেমোরিয়াল একাডেমীর ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম এর এমপিও ভুক্ত নিয়োগ প্রসঙ্গে ডিজি অফিস কর্তৃক একটি তদন্ত প্রতিবেদন দ্বারস্থ হয়। আমি উক্ত বিষয়টি তদন্ত করে গত ১৭ ই এপ্রিল প্রতিবেদনটি ডিজি অফিসে প্রেরণ করেছি।

এ ব্যপারে অভিযুক্ত ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ২০২২ সালে ধর্মীয় শিক্ষক হিসেবে এমপিও ভুক্ত হয়ে নিয়োগ প্রাপ্ত হ ভয়ে এককালীন বেতন ও বোনাস পেয়েছি।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


আরো সংবাদ
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com