নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

‘বিজেপি জনগণের জীবনকে কঠিন করে তুলেছে’

অন্যদৃষ্টি ডেস্ক
রবিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২২, ৭:৪৭ পূর্বাহ্ন

ভারতের হিমাচল প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ইশতেহার প্রকাশ করেছে কংগ্রেস দল। ইশতেহারে কংগ্রেস দলের পক্ষ থেকে হিমাচলের জনগণকে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

শনিবার ইশতেহার প্রকাশের সময় কংগ্রেস দল বিজেপিকে নিশানা করে বলেছে, ‘কেন্দ্রীয় সরকার সাধারণ মানুষের জীবনযাপনকে কঠিন করে তুলেছে। বিজেপির রাজ্য সরকার চাকরি দেয়নি। হিমাচল প্রদেশ মূল্যস্ফীতির কারণে ভুগছে। কেন্দ্রীয় সরকারের অগ্নিপথ প্রকল্পের কারণে রাজ্যের যুবকদের সঙ্গে অপরাধমূলক তামাশা হয়েছে। বিজেপি সরকার জনগণের জীবনকে কঠিন করে তুলেছে।’

কংগ্রেস বলেছে, ‘রাজ্য সরকার গড়লে মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে একলাখ সরকারি চাকরি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। জয়রাম সরকারের রাজনৈতিক কারণে কর্মচারীদের হয়রানির জন্য করা সমস্ত বদলি বাতিল করা হবে। ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী মহিলাদের প্রত্যেক মাসে ১ হাজার ৫০০ টাকা দেওয়া হবে। নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রকের মধ্যে একটি ‘শক্তি বিভাগ’ তৈরি করা হবে যা বিশেষভাবে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির সাথে কাজ করবে। প্রতিটি বিধানসভায় ১০ কোটি টাকার অর্থাৎ, রাজ্যে ৬৮০ কোটি টাকার যুব স্টার্ট-আপ তহবিল গঠন করা হবে। এর মাধ্যমে তরুণরা তাদের শিল্প বা ব্যবসা স্থাপনে শূন্য শতাংশ সুদে টাকা পাবে। সরকার প্রত্যেক পশু মালিকের কাছ থেকে প্রত্যেকদিন দশ কেজি দুধ কিনবে। এতে প্রাণিসম্পদ মালিকরা উৎসাহিত হবে এবং বেওয়ারিশ পশুর সমস্যাও কমবে। গরুর মালিকদের কাছ থেকে গোবর কেনা হবে প্রতি কেজি ২ টাকা দরে। এই গোবরকে ভার্মি কম্পোস্টে রূপান্তরিত করার জন্য পঞ্চায়েত স্তরে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

কংগ্রেস বলেছে, ‘প্রতি ঘরে তিনশো ইউনিট বিদ্যুৎ বিনামূল্যে দেওয়া হবে। ইউনিটটি এমনভাবে হিসাব করা হবে যাতে যারা বেশি ব্যবহার করেন তারাও এই ছাড়ের সুবিধা পেতে পারেন। এর ফলে দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো প্রত্যেক মাসে কিছু অর্থ সঞ্চয় করতে পারবে যাতে তারা মূল্যস্ফীতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারে।’ হিমাচল প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন হবে আগামী ১২ নভেম্বর, নির্বাচনের ফল ঘোষণা হবে ৮ ডিসেম্বর। -পার্সটুডে

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


আরো সংবাদ