নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
০২ অগাস্ট ২০২১, ১১:২৭ অপরাহ্ন

মাধ্যমিকের পর এবার প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ও ভূগছে ঝিনাইদহের বংকিরায়

অন্যদৃষ্টি ডেস্ক
সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১৮, ৬:০২ অপরাহ্ন

অন্যদৃষ্টি অনলাইন।।

বংকিরার দুইটি স্কুল নিয়ে কি নিদারুন খেলা !!

শিক্ষা, সাংস্কৃতি ও খেলার জন্য এক সময় বিখ্যাত ছিল বংকিরা গ্রামটি। ভাতৃত্ববোধ আর সৌহার্দ্যের কমতি ছিল না কালে কালে। কিন্তু হাল জামানায় এসে মুর্খদের কবলে পড়েছে গ্রামটি। সামাজিক নেতৃত্ব, স্কুলের সভাপতি কি রাজনীতি। কোথায় নেই মৃর্খদের আস্ফালন। সবখানেই তাদের দাপট। আর এই কারণে গ্রামটি এখন ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। গ্রামটিকে এই পর্যায়ে নিয়ে আসতে যারা প্রানপন চেষ্টা করেছিলেন, তারা আত্মসন্মান বোধে পিছু হটেছেন। তাই খাল দিয়ে গাং বয়ে গেলেও কেও টু-শব্দ করেন না। স্কুল গড়েছেন গ্রামের মানুষ। কিন্তু স্কুলের নেতৃত্ব তাদের হাতে নেই। নিয়োগ আসলে ফুলে ফেপে ওঠে পরগাছারা। প্রাইমারি স্কুলের দপ্তরী নিয়োগ নিয়ে ৭/৮ লাখ টাকার খেলা নিয়ে মুখে মুখে ফিরছে গুজবটি। স্কুল প্রতিষ্ঠাকারী আব্দুল কুদ্দুসের এতিম ছেলেটির আমরা চাকরি দিতে পারিনি। কি সেলুকাস আমাদের মানসিতকা। স্কুল কমিটির পদ পদবী সব ঝিনাইদহ থেকে নির্ধারিত হয় বলে নোংরা আর নীতিহীন রাজনীতিকে এখন দোষারোপ করা হয়। চাউর হয়েছে আগেই হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক পদটি বিক্রি হয়ে গেছে ১৮ লাখ টাকায়। কথাটি কতদুর সত্য তা বিবেচনার ভার গ্রামবাসি। এখন মন্ত্রনালয় থেকে পরিপত্র জারি হয়েছে প্রধান শিক্ষক হতে হলে প্রার্থীকে তিন বছরের সহ-প্রধান শিক্ষকের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। কিন্তু বানিজ্যকারীরা নাছোড় বান্দা। যাদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন, তাদের মধ্যে একজনকে তারা ব্যাকডেটে নিয়োগ দিতে চাচ্ছে প্রধান শিক্ষক পদে। এ সবে রাজি হন নি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মতিয়ার রহমান। সে জন্য তিনি পদত্যাগ করেছেন। যিনিই দুটি স্কুলের সভাপতি হন, তাদের নজর শিক্ষা বিস্তার বা উন্নত শিক্ষার দিকে নয়। বানিজ্য করে কি ভাবে লুটেপুটে খাওয়া যায় তার দিকেই ধান্দা। গত ৬/৭ বছরে বংকিরা হাই স্কুলে যে সব শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে সবার টাকা দিতে হয়েছে। নুন্যতম শিক্ষা জ্ঞান ও বংশ মর্যাদা থাকলে স্কুলের নিয়োগ নিয়ে কেও এই নোংরামি করতে পারে না। কারণ বংশীয়দের লজ্জা আর আত্ম সন্মান বোধ প্রকট। তাই গ্রামবাসির স্কুল, গ্রামবাসিকেই রক্ষা করতে হবে স্কুল ও গ্রামের মর্যাদা। তাই আসুন, সবাই প্রতিরোধ করি যারা স্কুলটির ঘাড়ে বন্দুক রেখে বানিজ্য করতে চাচ্ছেন। তাই আসুন শেষ বিকেলের বহ্নিশিখা জ্বালিয়ে বলে উঠি “জাগো বাহে কোনঠে সবাই ”।

সূত্র: ফেসবুক ওয়াল- Ami Bankirer Manush

 

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো সংবাদ