নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৩:২৬ অপরাহ্ন

নিস্তব্ধতা ভেঙে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত ঢাবি ক্যাম্পাস

ঢাবি প্রতিনিধি
শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১, ৪:১১ অপরাহ্ন

করোনার উর্ধ্বমূখী সংক্রমণের শুরুতে গত বছরের মার্চে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস বন্ধ করে দেওয়ার পর নিস্তব্ধতার মধ্য দিয়ে দেড় বছর পার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। দীর্ঘদিন পর সেই নিস্তব্ধতা ভেঙেছে নতুন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে।

নতুনদের পদচারণায় মুখরিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, স্বেচ্ছাসেবক, বিভিন্ন সংগঠনের কর্মীরা এসেছেন শিক্ষার্থীদের সহায়তা করতে।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) ভোর বেলা থেকে ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন জেলা থেকে পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসতে থাকেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে শিক্ষার্থী আর অভিভাবকদের পদচারণা। অভিভাবকরা অপেক্ষা করতে থাকেন সেই মহেন্দ্রক্ষণের।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পরীক্ষার্থীদের সহায়তায় কাজ করেছেন শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল মাহদী। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন পর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস তরুণদের পদচারণায় মুখরিত হয়েছে। প্রাণহীন ক্যাম্পাসে নতুন প্রাণের আগমণ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আনন্দিত করবে। আগামী ৫ তারিখ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি। তখন বন্ধুদের কাছে পেয়ে আরো আনন্দিত হবো।

শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষা চলে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত। দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্পটে পেপার কিংবা মাদুর বিছিয়ে, কেউবা ভবন কিংবা স্থপনার সিড়িতে বসে নিজেদের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মনোযোগ হাতে থাকা বইয়ের দিকে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি ইউনিটে এবার মোট ১২০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হবে। সেখানে মূল পরীক্ষায় (বহুনির্বাচনী ও লিখিত) ১০০ নম্বর এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ১০ নম্বর করে মোট ২০ নম্বর থাকবে। (মাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএকে ২ দিয়ে গুণ; উচ্চমাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএকে ২ দিয়ে গুণ করে এই দুইয়ের যোগফল)

ক, খ, গ ও ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনী ও ৪০ নম্বরের লিখিত অংশ থাকবে। উভয় অংশের জন্য ৪৫ মিনিট করে সময় থাকবে। তবে চ ইউনিটের বহুনির্বাচনী পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় বরাদ্দ থাকবে।

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে এবার রাজধানী ঢাকা ছাড়াও শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষার নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাবি কর্তৃপক্ষ। ঢাকা বিভাগের ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই। এ ছাড়া অন্য যে সাতটি বিভাগীয় শহরে অবস্থিত বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ভর্তি পরীক্ষা হবে।

কেন্দ্রগুলো হলো- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (ময়মনসিংহ), খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সিলেট), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (রংপুর)৷

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো সংবাদ