ব্রেকিং নিউজ
সংবাদকর্মী আবশ্যক। আগ্রহীগণ সিভি, ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ আবেদন করুন - onnodristynews@gmail.com/ news@onnodristy.com. মুঠোফোন : ০১৯১১২২০৪৪০/ ০১৭১০২২০৪৪০।

‘স্বপ্নেরা কুটে মরে…কিন্তু উদীয়মান মরে না’…

এলিস হক।।

ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া অফিসের ব্যবস্থাপনা খুুব সুষ্ঠু ও সুন্দর এবং সফলতার মধ্যদিয়ে জেলা পর্যায়ের খেলা শেষ করেছে। জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া অফিসকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে হয়। সাম্প্রতিক কালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনে নতুন ফুটবল প্রতিযোগিতাকে ঘিরে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে-তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের ফুটবলাঙ্গনে যুবদের জন্য ইতিবাচক। মাইল ফলকের ইঙ্গিত। স্মরণ করা যেতে পারে-তৃণমূল পর্যায়ের যুব ফুটবলের আয়োজন নিয়ে এর আগে কখনো হয়নি। দেশ স্বাধীনতার পর প্রথমবারের মতো একদম তৃণমূল পর্যায়ে অর্থাৎ ইউনিয়ন স্তরে নিয়ে যেতে পেরেছে। সেটাই কম বা কিসের!

অধিক বয়স্ক খেলোয়াড়ের ছড়াছড়ি…
একদিকে যেমন প্রশংসার দাবিদার উচ্চ ক্রীড়ামহলেই প্রকাশ পাচ্ছে..তেমনি অন্যদিকে যুবদের কাছে স্বস্তিদায়ক খবর শোনালেও রীতিমতো হতাশার কারণ ঘটেছে। যেকালে আশি-নব্বই দশকে যেকোনো ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে খেলোয়াড়ের বয়স চুরির ব্যাপার স্যাপার ছিল…এখনো সেই ঘরাণার সংস্কৃতি বিদ্যমান আছে। বাংলাদেশের গ্রামে-গঞ্জে এই জাতীয় বৃত্তের অপসংস্কৃতি হতে মুক্ত হয়নি। বেড়াজালে আটকে গেছে। এমনকি তৃণমূলদের দলীয় কোচ-ম্যানেজারদের দৃষ্টিভঙ্গির বালখিল্যতা বৃত্তের মন-মানসিকতা হতে বেরিয়ে আসতে পারেননি। এখানে সামগ্রিক অর্থে লিখে বোঝাতে চাইছি সারা বাংলাদেশকে ঘিরে। তারা এখনো সেই কালে বয়স চুরির আকাল এখনো বিদ্যমান। এই অপবৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসাও ভীষণ জরুরি।

সতেরোর জায়গায় খেলছে বুড়োরাও…
যাদের জন্য অনূর্ধ্ব-১৭ বছর বয়সীদের জন্য আয়োজন…সেই উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য এখন অনেকটাই লক্ষ্যচ্যূত হয়ে পড়েছে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মূল উদ্দেশ্য হলো-নতুন প্রতিভাবান যুব খেলোয়াড় বের করা। এই শ্লোগানের মূল উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে জেলা পর্যায়ে সেভাবে চলমানতা বজায় রেখেছে এবং কর্তৃপক্ষ একই সঙ্গে চলমান প্রক্রিয়ার অংশে যুবদের পাইপলাইন যুক্ত করেছে। এটা এখন অনেকটাই পানসে হয়ে গেছে। গোটা টুর্নামেন্টে অধিক বয়স্ক খেলোয়াড়েরর ছড়াছড়ি উৎসব!
টেকনিক্যাল কমিটিরা দেখতে পান-টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দলের মধ্যে ২০ থেকে ২৪ বছরের যুবকরাও সম্পৃক্তার ছাপ সুস্পষ্ট। এমন প্রমাণ ভুরি ভুরি উদাহরণ পাওয়া গেছে। যাদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আসছে, যা এখনকার ডিজিটাল যুগে দিবালোকের মতোই পরিস্কার। অনূর্ধ্ব-১৭ বছর খেলোয়াড়দের সুযোগ দেয়া হচ্ছে ঠিকই…কিন্তু এর বিপরীতে যা কিছু ঘটছে তাও অস্বাভাবিক। বাহ্যিক দৃষ্টিতে এটা গুরুতর অন্যায়।
যেমনটি ঘটে বাংলাদেশের যেকোনো ফুটবল প্রতিযোগিতায় বিদেশী বা আফ্রিকান খেলোয়াড়কে টাকার বিনিময়ে খেলা। তেমনটি ঘটেছে এই অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল প্রতিযোগিতার ভেতরেও। তৃণমূল বয়স্ক খেলোয়াড়কে টাকা কিনে মাঠে নামিয়েছে। মূল ১৭ বছর বয়সীদের দাবিয়ে রেখে অধিক বয়স্ক খেলোয়াড়েরা ছয়-নয় করে ফেলছে। প্রবাদ আছে-‘অতি ভক্তি তাঁতী নষ্ট’। এই তাঁতী গোষ্ঠীরাই যত নষ্টের গোড়া।

শিরোপার বিস্কুট কী খুব দরকারি ছিল…?
অধিকাংশ ক্রীড়ামোদী নিশ্চয়ই চাইবেন না-‘১৭ বছরের বদলে বুড়ো খেলোয়াড়েরা খেলার মাঠে দাপট দেখাক।’ এখানে বুুড়োদের নিয়ে জেলা হতে বিভাগীয় পর্যায়ে খেলতে গেলে অধিক বয়সের দোষে সাসপেন্ডের মুখোমুখি পড়বে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের তরফে কঠোর নির্দেশ রয়েছে যে, অধিক বয়স্কদের অংশগ্রহণ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। অভিযোগ প্রমাণিত হলে সেই দলকে কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে। সেই শাস্তির নিয়মের কথা জেনে-শুনেই হোক তারা না জেনে-শুনে অনেকে তৃণমূল পর্যায়ের কোচ-ম্যানেজাররা মানতে চান না। তারা যে কাজটি করেন তাহলো-‘শিরোপার বিস্কুট ধরে আনা চাই। কারণ, আমরা তাদের টাকা দিয়ে খেলোয়াড় কিনেছি। বহিরাগত বা পেশাদারী তৃণমূল বয়স্ক খেলোয়াড়দের ধরে মাঠে খেলিয়ে দেয়া না হলে আমাদের টাকাকেই অপমান করা হচ্ছে। কাজেই ১৭ বছরের নিচে খেলোয়াড়ের অধিকার মুন্ডুপাত হয়ে যাক। তাতে আমাদের কী!’

আন্ডার সতেরো মানেই কী বয়স্কদের প্রতিযোগিতা!!
অনূর্ধ্ব-১৭ মানে হলো সতেরোর নিচে। ১৭ বছরের নিচে অবস্থানকারী বয়সীরা এই ফুটবল প্রতিযোগিতার অধিকারী। বড় ঘটনায় তারা তিলকে তাল বানিয়ে ১৭কে ২২ কিংবা ২৪ বছর বানাতেও তাদের লজ্জার বালাই নেই। এখন এরা ভাবে-‘যেকোনো প্রকারে শিরোপার বিস্কুট ছিনিয়ে আনাই আমাদের মূল লক্ষ্য। বয়স কোনো জাত-পাতের বিষয় না।’
যে স্কুল ছাড়িয়ে কলেজে পড়েনি কিংবা এরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত নয়-এমন সংশ্লিষ্ট ভাড়াটে ফুটবল খেলোয়াড়েরা দাঁড়ি গোফ ছেটে সাফ সুরত করে মাঠে খেলছে!! যাদের ধরে আনা হয়েছে তারা কিছু না কিছু ভাড়াটে খেলোয়াড় তারাই এই টুর্নামেন্টের বিস্কুট খাওয়ার রেসের লাইন দাঁড়িয়েছে।

স্বপ্নের দুয়ারে কুটে কুটে মরেন ১৭ বছরের নবীন খেলোয়াড়েরা…
১৭ বছরের নিচেদের হলেই যেনো সব দোষ হয়ে যায়। যে খেলোয়াড়টি তৃণমূল খেলোয়াড় হিসেবে এই নিচ হতে পর্যায়ে উঠে আসছে…কত কষ্ট-যাতনা ভুগিয়ে, কত ঘাম ঝরিয়ে আর কত পরিশ্রমের দুয়ার নিয়ে মাঠে নেমেছে…তারা জানে-উদ্দেশ্য একটাই। আমরা সঠিক বয়স নিয়ে খেলছি…সঠিক যোগ্যতা দিয়ে মাঠে নামছি…আর সঠিক মূল্যায়ন পেতে আমরা সবাই উদগ্রীব হয়ে পড়ছিল। এরাই হলো আসল স্বপ্নের রঙিন হয়ে উঠা উদীয়মান যুব খেলোয়াড়দের প্রাণভোমরা। কিন্তু যাদের কারণে পরকাছা জাতীয় কূট-কৌশলের কাছে মার খেয়ে যায়…যাদের স্বপ্নগুলো অকালে মরে যায়…সেভাবে কিনাই বেদনার হৃদয়ে রক্ত ঝরে তাদের শরীরের প্রতি শিরা-উপশিরায়…অনূর্ধ্ব-১৭ বছরের যুব রঙিন স্বপ্নে ভরা যুবারা সত্যিই হতাশ। ফলে এরা প্রচন্ড রকমের মানসিক কষ্ট পেয়েছে। আসল যুব খেলোয়াড়দের কী মাঠে খেলার কোনো অধিকার নেই…সেই অধিকার কেড়ে নিয়েছে অধিক বয়স্করা তথা বিদূষণ জাতীয় গোষ্ঠীরা।

উড়ে এসে জুড়ে বসার কোনো মানে নেই…!!
অরিজিনাল আন্ডার সেভেন্টিন খেলোয়াড়রা ৪টি ম্যাচ খেলার পরে এসে উড়ে এসে জুড়ে বসা আরেক বয়স্ক পেশীশক্তি দলের কাছে বাঘে-ইঁদুরে লড়াই হলে হারতে হয়…জোর করে হারিয়ে দেয়ার মধ্যে কোনো কৃতিত্ব নেই…কোনো বাহাদুর নেই…কোনো গর্বও নেই। বরং এই জাতীয় ঘটনার থাকে বড়ই অপমানকর…বড়ই লজ্জার। স্বপ্নেরা মরে…কিন্তু উদীয়মানেরা মরে না…।
….এখানেও তাই ঘটেছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল প্রতিযোগিতার বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান স্টেডিয়ামসহ সারা বাংলাদেশের নয়া ঘটনার নয়া ম্যাচের কাহানি…..হায়রে…ফুটবল!!

Facebook Comments


শিরোনাম
২৬ জানুয়ারি নয়, মাধ্যমিক পর্যায়ে ‘স্টুডেন্ট কেবিনেট’ নির্বাচন মার্চে এমপিওভূক্ত শিক্ষক-কর্মচারিদের দশ শতাংশ চাঁদার আদেশ জারি এক মাস সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে: শিক্ষামন্ত্রী মোংলা সুন্দরবন থেকে পৃথক অভিযানে হরিণের মাসংসহ ট্রালার জব্দ পাবনা সুগার মিলের ট্রাক্টরের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঈশ্বরদীতে শিশুর মৃত্যু! ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ব্যাংক এশিয়ার নতুন শাখা উদ্বোধন  মাগুরা শ্রীপুর উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ডজন ছাড়িয়ে! মোংলা ইপিজেডে পাথর চাপায়  শ্রমিকের মৃত্যু একজন ক্ষুদে কিশোর সাংবাদিক বনাম সমাজ সেবক! নিয়ামতপুরে ব্যক্তি উদ্যোগে রাস্তা নির্মান, ২৪টি পরিবারে স্বস্তি ডাকাত-চোরের নিরাপদ বিচরণ নওগাঁর পোরশায় ‘ক্রীড়াই শক্তি, ক্রীড়াই বল’…ওয়াজির আলী স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ১৫৩ রানে জিতেছে মহেশপুর গভর্ণমেন্ট হাইস্কুল   হলি আর্টিজানে হামলার অর্থ-অস্ত্র আসে ভারত থেকে: র‍্যাব কৃষ্ণ সাগরে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ার: নজর রাখছে রাশিয়া নৈতিক আদর্শ চর্চা ও জনকল্যাণে ছাত্রসেনা নিবেদিত: মুহাম্মদ শফিউল আলম সাকিব জামাল’র কবিতা এমপিওভূক্ত শিক্ষক-কর্মচারিদের বাড়ি ভাড়া নিয়ে এ.এম.এম.মুস্তাফিজুর রহমান’র কবিতা মিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার পদপ্রার্থী এ্যাড. আব্দুল হালিমের পক্ষে মটর সাইকেল শোভাযাত্রা মনোহরগঞ্জ উপজেলা শারীরিক শিক্ষা শিক্ষক সমিতির কমিটি গঠন কোটচাঁদপুরে ট্রেনের সামনে ঝাপ দিয়ে এক বৃদ্ধের আত্বহনন অবশেষে কাস্টম হাউস মোংলায় আসছে, রফতানি আমদানির হবে তরান্বিত  নিরীহ কোন লোক হয়রানি হবে না: ওসি মিজানুর রহমান খান আসামীদের ভয়ে বাদী গ্রাম ছাড়া হত্যার হুমকী ঝিনাইদহে সাড়ে ১৭ কোটি টাকার রাস্তা নির্মানে দুর্নীতি, কাজ বন্ধ করলো জনগণ
© All rights reserved © 2017 Onnodristy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com