১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ || বুধবার || ০২:০৩ অপরাহ্ন

আপনাদের দর্শক আমাদেরকে এতো সমর্থন দিয়েছে…ভাবাই যায় না : মিডিয়া ম্যানেজার রঞ্জিত

সম্প্রতি ঝিনাইদহ বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান স্টেডিয়ামে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলতে এসেছিল ভারতের পশ্চিমবাংলার নদীয়া জেলার কল্যানী স্পোর্টস মিউনিসিপ্যালিটি একাডেমী। সেখানে সফরকারী কল্যানী স্পোর্টস একাডেমীর মিডিয়া ম্যানেজার রঞ্জিত সরকার পলাশের সাথে কিছুক্ষণ ক্রীড়ালাপ হয়। সাক্ষাৎকার নেন অন্যদৃষ্টির স্পোর্টস রিপোর্টার এলিস হক।

আপনাদের দর্শক আমাদেরকে এতো সমর্থন দিয়েছে…ভাবাই যায় না : মিডিয়া ম্যানেজার রঞ্জিত সরকার পলাশ

অন্যদৃষ্টি : আপনাদের কল্যানী স্পোর্টস মিউনিসিপ্যালিটি একাডেমী সম্পর্কে কিছু তথ্য এবং সাম্প্রতিক কালে একাডেমীর ক্রীড়া কার্যক্রম বিষয়ে জানতে চাই?

রঞ্জিত সরকার পলাশ : কল্যানী স্পোর্টস মিউনিসিপ্যালিটি একাডেমী ফুটবল, ক্রিকেট, টেবিল টেনিস অন্যান্য খেলাধুলায় সব সময় অংশ নিয়ে থাকে। আমরা আজকে কল্যানী স্পোর্টস মিউনিসিপ্যালিটি একাডেমী বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলা মেয়র একাদশের সাথে খেলতে এসছি। আমাদের অনূর্ধ্ব-১৪ হতে ১৬ বছর বয়সী সব খেলোয়াড় রয়েছে।
এর আগে আমাদের টিম দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিভিন্ন ইভেন্টের খেলাধুলায় ভালোভাবে খেলা খেলেছে এবং সফলতা লাভ করেছে। দলটি বিভাগীয় থেকে শুরু জেলা এমনকি জাতীয় পর্যায়ে পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এই দলটির আসার আগে একটি আন্তঃজেলা টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়নশিপ ছিল, সেখানেও এই দলটি অংশ নিয়েছে। আমরা এখানে খেলতে এসছি…১৪ জন খেলোয়াড় রয়েছে। তারা এর আগেও দেশের বাইরে খেলতে গিয়েছিল। এই দলটি চীন, হংকং এবং নেপালে ফুটবল খেলে এসেছে। আসলে খেলাধুলায় সব সময় সফলতা আমাদের দলের রয়েছে এবং থাকবে। আমাদের কোচ, ফিজিও যারা অফিসিয়াল সব সময় তাদেরকে মানসিক ও শারীরিক সবদিক দিয়ে সাপোর্ট দেয়ার চেষ্টা করেন।

আমাদের কোচ রয়েছেন দেবব্রত বিশ্বাস, সহকারী কোচ প্রশান্ত সরকার, ফিজিও প্রবীর চক্রবর্তী, সহকারী ফিজিও রয়েছেন বরুন নন্দী, দলীয় ম্যানেজার রয়েছেন প্রিয়রঞ্জন নাগ…যিনি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার দু’টি দেশ নিয়ে যৌথভাবে সমন্বয়কারী কর্মকর্তা হিসেবে জড়িত রয়েছেন মিলন কুমার ঘোষ…মিলন বাবু..তিনিই এখন দুইদেশের সাথে সমন্বয়কারী কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন।

আমি রঞ্জিত সরকার পলাশ মিডিয়া ম্যানেজার রয়েছি। পুরো দলটির সমস্ত রিপোর্ট নিয়ে তৈরি করতে হয় এবং ভারত-বাংলাদেশের মধ্যকার সংবাদপত্র বন্ধুরা রয়েছেন যারা, আমরা আমাদের কল্যানী স্পোর্টস মিউনিসিপ্যালিটি একাডেমীর যাবতীয় কার্যক্রম নিয়ে পুরো বক্তব্য দিয়ে তাদের কাছে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করি।
একটা কথা বলি যে, ভারত-বাংলাদেশ দু’টি দেশের মধ্যে যে আজকে দুটো পৌরসভার মধ্যে ফুটবল খেলা হচ্ছে। এটা শুধু পৌরসভা নয়, এটা মৈত্রী ভ্রাতৃত্বের বন্ধন নিয়ে সুসম্পর্কে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ বা বন্ধুত্বপূর্ণ খেলা। খুব ভালোভাবে খেলা হচ্ছে।

অন্যদৃষ্টি : বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলা শহরে আপনার কেমন লাগছে এবং কিভাবে উপভোগ করছেন আপনি?
রঞ্জিত সরকার পলাশ : জ্বী হ্যাঁ, আমরা গত ৫ই সেপ্টেম্বরে যশোর হয়ে ঝিনাইদহে এসছি। আমরা এখানে আপনাদের যথেষ্ট অতিথির আপ্যায়ন পেয়েছি…যা ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না। ঝিনাইদহ শহরে আমরা কিছুুটা ঘুরেছি। সত্যি কথা বলতে কখনো অনুভব করতে পারছি না যে আমরা বিদেশী মাটিতে রয়েছি।
আমরা যথেষ্ট আন্তরিকভাবে বলছি যে, বন্ধুত্বপূর্ণ নয়, ভ্রাতৃত্বপূর্ণ নয় চাই আন্তরিকতা…সেটা ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। ভালো লেগেছে। এখনো পর্যন্ত আমরা দেখতে পাচ্ছি যে, খেলা হচ্ছে। এতো মানুষ..এতো দর্শক…আমাদের দলের জন্য খেলা দেখতে এতো দর্শক এসছে..প্রচুর মানুষ আমাদের দলকে সমর্থন করেছেন…ভাবাই যায় না। প্রত্যেকটি মানুষ আমাদের কল্যানী স্পোর্টস একাডেমীর সাথে মিলেমিশে থাকার চেষ্টা করেছেন। প্রত্যেকের শুভেচ্ছা আর ভালোবাসা ও অভিনন্দন রইলো।

অন্যদৃষ্টি : কথা বলার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
রঞ্জিত সরকার পলাশ : আপনাকেও ধন্যবাদ।

Facebook Comments


© All rights reserved © 2017 Onnodristy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com