ব্রেকিং নিউজ
সংবাদকর্মী আবশ্যক। আগ্রহীগণ সিভি, ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ আবেদন করুন - onnodristynews@gmail.com/ news@onnodristy.com. মুঠোফোন : ০১৯১১২২০৪৪০/ ০১৭১০২২০৪৪০।

১০০ টাকা রিচার্জ করলে সরকার নেবে ২৭ টাকা

অন্যদৃষ্টি ডেস্ক।।

নতুন বাজেটে মোবাইল গ্রাহকের কথা বলার ওপর করের বোঝা আরও বাড়ছে। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, কথা বলার ওপর (টকটাইম) ‘অতিরিক্ত’ ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক্ক আরোপের প্রস্তাব করা হচ্ছে।

বর্তমানে মোবাইল সেবার ওপর ১৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট), ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক্ক এবং তার সঙ্গে ১ শতাংশ সারচার্জসহ মোট করের পরিমাণ প্রায় ২২ শতাংশ। এবারের বাজেটে বিদ্যমান করের সঙ্গে ‘বাড়তি’ পাঁচ শতাংশ যোগ হচ্ছে। বাড়তি করহার কার্যকর হলে তখন মোবাইল সেবায় মোট করহার দাঁড়াবে প্রায় ২৭ শতাংশ। ফলে গ্রাহকের কথা বলার খরচ আরও বেড়ে যাবে।

অর্থাৎ একজন গ্রাহক ১০০ টাকা রিচার্জ করলে তা থেকে প্রায় ২৭ টাকা কর বাবদ নিয়ে যাবে সরকার, যা এখন আছে ২২ টাকা। ফলে গ্রাহক যত বেশি কথা বলবে, তত বেশি কর পাবে সরকার। বর্তমানে দেশে মোবাইল গ্রাহকের সংখ্যা প্রায় ১৬ কোটি। বাজেটে প্রস্তাবিত সম্পূরক শুল্ক্ক হার কার্যকর হলে ১৬ কোটি গ্রাহকের ওপর বাড়তি করের বোঝা চাপবে। সংশ্নিষ্ট অপারেটর বলছে, মোবাইলের বহুমাত্রিক সেবা বেড়েছে, যা তৃণমূল পর্যন্ত পৌঁছেছে। এ অবস্থায় মোবাইল খাতে বাড়তি কর আরোপ করলে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে ১০০ জনের মধ্যে ৮৪ জন মোবাইল ব্যবহার করেন।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, মোবাইল সেবার বাইরে এখন প্রতি সিম সংযোজন এবং প্রতিস্থাপনে ১০০ টাকা নির্ধারিত কর দিতে হয়। ২০০৫-০৬ অর্থবছরে সিমকে প্রথমবারের মতো করের আওতায় আনা হয়। তবে প্রথমদিকে নির্ধারিত কর ছিল ৩০০ টাকা। ক্রমান্বয়ে তা কমিয়ে আনা হয়। গ্রাহকের সংখ্যা বাড়াতে নিজেরাই এই কর দিয়ে থাকেন মোবাইল অপারেটররা। যদিও এই কর প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে আসছে মোবাইল অপারেটররা।

মোবাইল সেবা ঘিরে বর্তমানে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ তৈরি হয়েছে। সেবার ভ্যাট আদায়ের পাশাপাশি মোবাইল সেট আমদানি থেকে বড় অঙ্কের রাজস্ব পায় সরকার। জানা যায়, মোবাইল হচ্ছে স্থানীয় পর্যায়ে রাজস্ব আয়ের দিক থেকে দ্বিতীয় বৃহত্তম খাত। গত অর্থবছরে এ খাত থেকে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় হয়। এর বাইরে সেট আমদানি বাবদ আয় হয় আড়াই হাজার কোটি টাকা। আগে মোবাইলে সারচার্জ ছিল না। তিন অর্থবছর আগে এর ওপর সারচার্জ আরোপ করা হয়। তবে সারচার্জ বাবদ যে অর্থ আদায় হয়, তা শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসহ মানবসম্পদ উন্নয়নে ব্যয় করা হয়।

Facebook Comments


Leave a Reply

শিরোনাম
একটি রোগীও চিকিৎসা বিহীন অবস্থায় মারা যাবে না : স্বাচিপ দেশের মানুষের কথা চিন্তা কওে সড়ক দূর্ঘটনা আন্দোলন করছি : ইলিয়াস কাঞ্চন নওগাঁয় শীতার্তদের মাঝে তৃণা মজুমদারে শীতবস্ত্র বিতরণ নওগাঁয় ডিবির অভিযানে আটক-১ লুটপাটের মামলায় বিতর্কিত ইউপি চেয়ারম্যানের কারাদন্ড এলাকায় মিষ্টি বিতরণ! শেরপুরের কৃষকরা বোরো ধানের শুকনো বীজতলা তৈরিতে ব্যস্ত সরিষাবাড়ীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রসমাজের নেতার বাবার কুলখানি অনুষ্ঠিত বাগেরহাট প্রেসক্লাবে কুলাঙ্গার ছেলের বিরুদ্ধে মা-বাবার সংবাদ সম্মেলন যুবকের রহস্য জনক মৃত্যু, আত্মহত্যা না খুন? বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে বশেমুরবিপ্রবি বশেমুরবিপ্রবিতে ইটিই’র দাবি অযৌক্তিক অভিযোগে ইইই’র কর্মসূচি চট্রগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক নাসিরনগর ওসি (তদন্ত) কবির হোসেন ঝিনাইদহে আরাফাত রহমান কোকোর ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে  দোয়া মাহফিল ও স্মরণসভা  মাগুরা শ্রীপুরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান মাগুরায় বন্দুক যুদ্ধে নড়াইলের ডাকাত নিহত এম.এস ইসলাম’র বরণের গান সামাজিক অবক্ষয়ের মূল কারণ দূর্নীতি বিষয়ে বিতর্ক ইবিতে ছায়া জাতিসংঘের কর্মশালা ইবি শিক্ষার্থী বদরুলের ক্যান্সার চিকিৎসায় প্রয়োজন ১৫ লাখ টাকা ই-রিকুইজিশনের সময় বাড়ালো এনটিআরসিএ ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধন বিজ্ঞপ্তি ২০২০ প্রকাশ  ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে কলেজ ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে মাদক ও জঙ্গীবাদ বিরোধী মতবিনিময় সভা মাগুরায় গরু চোর আটক ঝিনাইদহে ২৫ জানুয়ারি শুরু হচ্ছে ৩দিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন

© All rights reserved © 2017 onnodristy.com

Theme Download From ThemesBazar.Com