ব্রেকিং নিউজ
সংবাদকর্মী আবশ্যক। আগ্রহীগণ সিভি, ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ আবেদন করুন - onnodristynews@gmail.com/ news@onnodristy.com. মুঠোফোন : ০১৯১১২২০৪৪০/ ০১৭১০২২০৪৪০।

গোটা বিশ্ব অবাক! ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করলেন বাংলাদেশি আতাউল

অন্যদৃষ্টি অনলাইন।।

ভাসমান ট্রেন আবিষ্কার করে সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশি পদার্থ বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. আতাউল করিম। বাংলাদেশের এই বিজ্ঞানী এমন একটি ট্রেন আবিষ্কার করেছেন যা চলার সময় ভূমিই স্পর্শ করবে না!

ফলে তার এ অভিনব আবিষ্কার পৃথিবী জুড়ে রীতিমত সাড়া ফেলে দিয়েছে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন দেশে এ ট্রেন বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের চিন্তা ভাবনা চলছে।

জানা গিয়েছে, ২০০৪ সালে এ ভাসমান ট্রেনের প্রকল্পটি হাতে নেন তিনি। দেড় বছরের মাথায় ট্রেনটির প্রোটোটাইপ তৈরি করতে সক্ষম হন। যেখানে ওল্ড ড্যামিয়ান ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা ৭ বছর চেষ্টা করেও সফলতা পায়নি। পরের সময়টায় নাম করা বিজ্ঞানীরা এ মডেলটি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখেছে। কিন্তু কোন খুঁত খুঁজে না পাওয়ায় এটা বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আরও জানা গিয়েছে, ট্রেনের প্রচলিত ধারাকে পেছনে ফেলে ড. আতাউল করিম সম্পূর্ণ নতুন এক পদ্ধতিতে এই ট্রেনের ডিজাইন করেছেন। এ ট্রেনের গঠনশৈলীও খুবই আকর্ষণীয়। এর প্রধান বৈশিষ্ট্য, এটা চলার সময় ভূমিই স্পর্শ করবে না। ট্রেনটি চুম্বক শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সাবলীলভাবে চলবে। এর গতিও অনেক বেশি হবে। অনেকটা বুলেট ট্রেনের মত! জার্মানি, চিন ও জাপানে ১৫০ মাইলের বেশি গতির ট্রেন আবিষ্কৃত হয়েছে।

তবে এগুলির সঙ্গে আতাউল করিমের ভাসমান ট্রেনের পার্থক্য হচ্ছে, ওই ট্রেনে প্রতি মাইল ট্র্যাক বসানোর জন্য গড়ে খরচ পড়ে ১১ কোটি ডলার। আর সে জায়গায় আতাউল করিমের আবিষ্কৃত এই ট্রেনে খরচ হবে মাত্র ১ কোটি ২০ লাখ থেকে ৩০ লাখ ডলার।

আতাউল করিম ১৯৫৩ সালের ৪ মে সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ছিলেন একজন ডাক্তার। আতাউল করিম ১৯৭৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগে বিএসসি (সম্মান) পরীক্ষায় সাফল্যের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান।

ভর্তি হন সেখানকার আলবামা বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখান থেকে ১৯৭৮ সালে পদার্থবিদ্যায় এবং ১৯৭৯ সালে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতকোত্তর লাভ করেন। একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮২ সালে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

আতাউল করিম ১৯৮১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের আরকানসাস রাজ্যের রাজধানী লিটিল রকের ইউনিভার্সিটি অব আরকানসাসে শিক্ষকতা শুরু করেন। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া রাজ্যের ওল্ড ডমিনিয়ন ইউনিভার্সিটি (ওডিইউ) ইন নরফোকের গবেষণা বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট।

১৯৭৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমালেও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখা করতে আতাউল করিম প্রায়ই বাংলাদেশে আসেন।

Facebook Comments


Leave a Reply

শিরোনাম
হরিণাকুণ্ডু উপজেলাতে ধানী জমিতে পুকুর কাটা বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালত হরিণাকুণ্ডুতে বাজার বনিক সমিতির সভা অনুষ্ঠিত রাজবাড়ী-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রেল চলাচল উদ্বোধন রবিবার আকাশ থেকে পদ্মাসেতুর ছবি তুললেন প্রধানমন্ত্রী ভাবনা-অনিমেষ সম্পর্কে নতুন মোড় নওগাঁয় ব্যালট পেপারে সিল মেরে কৃষকরা নির্বাচিত করলেন অপারেটর পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ ভূয়া ম্যাজিষ্ট্রেট আটক ! একটি রোগীও চিকিৎসা বিহীন অবস্থায় মারা যাবে না : স্বাচিপ দেশের মানুষের কথা চিন্তা কওে সড়ক দূর্ঘটনা আন্দোলন করছি : ইলিয়াস কাঞ্চন নওগাঁয় শীতার্তদের মাঝে তৃণা মজুমদারে শীতবস্ত্র বিতরণ নওগাঁয় ডিবির অভিযানে আটক-১ লুটপাটের মামলায় বিতর্কিত ইউপি চেয়ারম্যানের কারাদন্ড এলাকায় মিষ্টি বিতরণ! শেরপুরের কৃষকরা বোরো ধানের শুকনো বীজতলা তৈরিতে ব্যস্ত সরিষাবাড়ীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রসমাজের নেতার বাবার কুলখানি অনুষ্ঠিত বাগেরহাট প্রেসক্লাবে কুলাঙ্গার ছেলের বিরুদ্ধে মা-বাবার সংবাদ সম্মেলন যুবকের রহস্য জনক মৃত্যু, আত্মহত্যা না খুন? বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে বশেমুরবিপ্রবি বশেমুরবিপ্রবিতে ইটিই’র দাবি অযৌক্তিক অভিযোগে ইইই’র কর্মসূচি চট্রগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক নাসিরনগর ওসি (তদন্ত) কবির হোসেন ঝিনাইদহে আরাফাত রহমান কোকোর ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে  দোয়া মাহফিল ও স্মরণসভা  মাগুরা শ্রীপুরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান মাগুরায় বন্দুক যুদ্ধে নড়াইলের ডাকাত নিহত এম.এস ইসলাম’র বরণের গান সামাজিক অবক্ষয়ের মূল কারণ দূর্নীতি বিষয়ে বিতর্ক

© All rights reserved © 2017 onnodristy.com

Theme Download From ThemesBazar.Com