ব্রেকিং নিউজ
সংবাদকর্মী আবশ্যক। আগ্রহীগণ সিভি, ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ আবেদন করুন - onnodristynews@gmail.com/ news@onnodristy.com. মুঠোফোন : ০১৯১১২২০৪৪০/ ০১৭১০২২০৪৪০।

আধাঁর ঘরে চাঁদের আলো: নওগাঁয় মাদুর বুনিয়ে জিপিএ-৫ পেলো আশা!

আর, আর চৌধুরী, নওগাঁ।।

বাবা ছিলেন রাজমিস্ত্রি। তিন ভাই-বোনের মধ্যে আশা সবার ছোট। ভালোই চলছিলো দিনমজুরের সংসার। কিন্তু চিকিৎসার অভাবে বাবা মারা যায় গত ১২ সালে। এরপর বড় ভাইয়ের আয় আর মাদুর তৈরি করে কোন মতে চলছিলো সংসার।

নিজের পড়াশোনার খরচ যোগানোর জন্য মাদুর তৈরি করতো আশা মুনি। নিজের চেষ্টা আর স্কুলের শিক্ষক ও কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় চলতো আশা মুনির পড়ালেখা। আশা মুনি নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার পার্শ্ববর্তি বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলার শেষ সীমানা দড়িয়াপুর গ্রামের মৃত- আজাদ হোসেনের মেয়ে। সে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় সায়েম উদ্দিন মেমোরিয়াল একাডেমী থেকে কারিগরি (ভোকেশনাল) বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। কিন্তু বর্তমানে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করা নিয়ে সে নিজে এবং তার গরীব-অসহায় পরিবার অনেকটাই অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে।

আশা মুনি বলে আমি অনেক কষ্ট করে পড়ালেখা করেছি। আমার এই ফলাফলের পেছনে পরিবার ও স্কুল শিক্ষক এবং স্কুল কর্তৃপক্ষের অসীম ভ’মিকা রয়েছে। আমার পরিবারের পক্ষে আগামীতে আমার পড়ালেখার খরচ যোগান করা অনেক কষ্ট সাধ্য। তাই জানি না আমি উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবো কিনা। তবে আমার ইচ্ছে আমি দেশের সব পড়াশোনা শেষ করে দেশ ও গরীব-অসহায় মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। আমার পরিবার এখন আমাকে বিয়ে দিতে চায়। কিন্তু আমি আরো পড়ালেখা করতে চাই। (আশা মুনির সঙ্গে কথা বলার মোবাইল নম্বর: ০১৭৩৭১৪৬২৪৫)।

আশা মুনির মা ফেরদৌস বেগম বলেন স্বামীর অকাল মৃত্যুর পর থেকে বড় ছেলের আয় আর আমার মাদুর তৈরি করে যে টাকা আয় হতো তা দিয়ে এক ছেলে আর এক মেয়ের পড়ালেখার খরচ যোগানো আমার জন্য খুবই কষ্টসাধ্য ছিলো। তবুও মেয়ের ইচ্ছে অনুসারে চেষ্টা করেছি তাকে এসএসসি পাশ করানোর জন্য। কিন্তু এখন মেয়ের পড়ালেখার জন্য খরচ যোগানো আমার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছে না। তাই মেয়েকে একটি ভালো পরিবার দেখে বিয়ে দিয়ে মুক্ত হতে চাই। আর যদি কোন প্রতিষ্ঠান কিংবা সমাজের বিত্তবানরা সহযোগিতা করতো তাহলে হয়তো বা আমার মেয়ের স্বপ্ন পূরণ হতো।

সায়েম উদ্দিন মেমোরিয়াল একাডেমীর অধ্যক্ষ ইকবাল মো: সাইদুর কবীর বলেন, আশা মুনি অনেক কষ্ট করে পড়ালেখা করেছে। তার বাবার মৃত্যুর পর আশার বড় ভাই পড়ালেখা ছেড়ে দিয়ে পরিবারের হাল ধরে। তবে ওদের পরিবারের আয়ের মূল উৎস ছিলো মাদুর তৈরি। তবে আমাদের সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি আশাকে সহযোগিতা করার। তবে কেউ আশার দায়িত্ব নিলে হয়তো বা তার পড়ালেখা চলমান থাকতো। তা না হলে হয়তো বা তার গরীব পরিবার তাকে বিয়ে দিয়ে দিবে।

Facebook Comments

Please Share This Post in Your Social Media

শিরোনাম
এবার ৩ হাজার টাকার স্টেথিসকোপের দাম ১ লাখ ১২ হাজার কুষ্টিয়ার মিরপুরে মোবাইলকোর্টে ১ জনের ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড যশোর বিআরটিএ কার্যালয়, ঘুষ ছাড়া সেবা মেলে না যেখানে নওগাঁয় সাংবাদিকদের সাথে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় নওগাঁয় করল্যার চাষে স্বাবলম্বী অনেক কৃষক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ভুয়া এনজিওর নামে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ ঝিনাইদহ   জেলা বিএনপি’র ৫১ সদস্য বিশিষ্ট আহব্বায়ক  কমিটির  অনুমোদন  নাসিরনগরে প্রধান শিক্ষকের উপর হামলা হরিণাকুণ্ডু উপজেলাতে এক মাদকসেবীর ৩ মাসের কারাদণ্ড রাঙ্গুনিয়ায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযান চুয়াডাঙ্গা এখন ডিজিটাল জেলা যা বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই হরিণাকুণ্ডু উপজেলাতে মৎস্য পোনা অবমুক্ত করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসার আঁখি নামের গৃহবধুর জীবন প্রদীপ নিভিয়ে দিলো শশুর, ভাসুর, দেবর তিন শর্তে অস্থায়ী এমপিও, পরিপত্র ঘোষণা যেকোন সময় কালো নারীর পণ যবিপ্রবির মেধাবী শিক্ষার্থী প্রসেনজিতের অকাল মৃত্যু আমাকে ফিরিয়ে দাও কুষ্টিয়ায় নিখোঁজের ৩দিন পর সুন্দরী গৃহবধুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার! ঝিনাইদহ র‌্যাবের হাতে ফেনসিডিল ও গাজাসহ দু’জন গ্রেফতার কাশ্মীরের মানুষের অধিকার পুরোপুরিভাবে লঙ্ঘন করা হচ্ছে : মমতা আমাদের সম্পর্ক যথেষ্ট শক্তিশালী : জয়শঙ্কর ইরানের ওপর আমেরিকার ‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগের নীতি ব্যর্থ হয়েছে: শামখানি ১৪৩ পদে নিয়োগ দেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এই প্রথম বাংলাদেশি ছবিতে সানি লিওন! আবার বিয়ে করলেন দ্য রক
© All rights reserved © 2017 Onnodristy.Com
Theme Download From ThemesBazar.Com