ব্রেকিং নিউজ
সংবাদকর্মী আবশ্যক। আগ্রহীগণ সিভি, ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ আবেদন করুন - onnodristynews@gmail.com/ news@onnodristy.com. মুঠোফোন : ০১৯১১২২০৪৪০/ ০১৭১০২২০৪৪০।

ছাত্র শিক্ষক ও অভিভাবকের ভাঙা সেতু

জহিরুল ইসলাম।।

‘ছাত্রটি শিক্ষকের পিঠ বেয়ে মাথায় চড়বে আর উনার কাজ হবে শোনা-যাদু-ময়না বলে হাসিমুখে অতি যতনে নিচে নামানো’।

লক্ষ্য করছিলাম, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বর্তমান পাঠদান, শিক্ষকের সাথে ছাত্রের আচরণ, ছাত্রদের অসদাচরণে শিক্ষকের অপারগতা। দিনগুলো কেমন যেন বদলে যাচ্ছে। অধিকাংশ ছাত্রদের পোশাক-আশাক দেখলে ছাত্রত্ব আছে বলে মনে হয়না। ছেঁড়া প্যান্ট, বোতাম ছাড়া শার্ট আর পায়ে স্যান্ডেল এমন উদ্ভট বেশ-ব্যোশাতে ক্লাসে ও ক্যাম্পাসে। তাদেরকে খুব চঞ্চল মনে হয়। তারা গরিব ঘরের কোন ছেলে নয় যেন টাকা-পয়সার অভাবে এমন পোশাক পড়তে বাধ্য হচ্ছে। আসলে এটি তাদের ফ্যাশন।
শিক্ষকের সামনে দিয়ে হেঁটে যাবে মাথা উঁচু করে, উচকো-কুচকো স্টাইলে হেয়ার কাটিংয়ের খাড়া খাড়া চুলগুলো যেন নুয়ে না পড়ে।

বই-খাতা-কলম  আনবেনা যদি কোন মেয়ে তাকে আবার বেকডেইটেড ভেবে পেলে। সাথে থাকবে স্মার্টফোন যেখানে পড়াশোনাসহ দুনিয়ার হাজার রকম বিনোদন পাওয়া যায়। স্যারের বক্তব্যও তারা রেকর্ড করে  অতি যতনে সংরক্ষণ করে রাখবে।

আফসোস! এই ছেলেরা যদি মার্জিত রুচিসম্মত পোশাকে না আসে, রুচিসম্মত  মানসিকতায় না ফিরে, বর্তমান আধুনিক বিশ্বের সভ্য সমাজের অনুস্মরণ – অনুকরণ না করে, মুখ দিয়ে যতই বুলি আওড়ান না কেন কাজের কাজ কিছুই হবেনা।

শিক্ষককে দেখার পর ছাত্রের মাথা নিচু না হলে উনার মূল্যবান কথাগুলো কখনও কানে পৌঁছাবে না বরং খাড়া খাড়া চুলের ফাঁকে দিয়ে চলে যাবে। শিক্ষকের নির্দেশনাগুলো খাতায় নোট না করে, বইয়ের পাতায় আন্ডারলাইন না করে কখনও স্থায়ীভাবে মনে রাখা সম্ভব হবেনা। উপস্থিত কথাগুলো এক কান দিয়ে প্রবেশ করে অন্য কান দিয়ে বের হয়। এই চলতি পথে লিখে বা পড়ে যদি কেউ বাধার সৃষ্টি করতে পারে কেবল তখনই তা স্থায়ী শিক্ষায় পরিণত হয়।

কিন্তু আজকালের ছেলেমেয়েরা স্মার্টফোনের গুণে গুণান্বিত। এটিই তাদের উত্তম শিক্ষক হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে।  এর এতো শত গুণ যা গুণে শেষ করার মতো নয়। সবরকম শিক্ষায় তারা এতে পেয়ে থাকে। তাদের বয়সের সাথে আসক্তির বিষয়গুলো এতো সুন্দর করে সাজানো গুছানো থাকে যার মধ্যে সারাক্ষণই ডুবে থাকতে পারে।

অভিভাবকের কাছে এর পজিটিভ গুরুত্ব এমনভাবে প্রেজেন্ট করেন যা না হলে পড়াশোনা করাই প্রায় অসম্ভব।  উনি এত গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রটি কিনে দিতে না পারলে এমন হীনমন্যতায় ভোগেন যেন ছেলের জীবনটাই নষ্টের কারণ তিনি।

ছেলে পড়ার টেবিলে হাতে স্মার্টফোন!  বাহ্ কি মনোযোগী!  ভীষণ আনন্দ বাবার। একেবারে তৃপ্তির ঢেকুর নিয়ে তৃপ্ত হয়ে বসে আছেন। এর ভিতরে কোন আলফা স্টেশনে সে পৌঁছে গেল তার খোঁজ কে রাখেন! একটু কষ্ট করে প্রতিষ্ঠান প্রধান কিংবা তার শিক্ষক পর্যন্ত পোছাতে পারছেন না।
আফসোস! উনি যদি চূড়ান্ত রেজাল্টের আগে ছেলের পর্যায়ক্রমিক রেজাল্টের খোঁজ রাখতেন।
একজন শিক্ষক শুধু শিক্ষকই নন বরং একজন অভিভাবকও বটে। যিনি সবসময় চেষ্টা করেন তার ছাত্রটি সেরাদের সেরা হবে, বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে, বিশ্ব গড়ার কারিগর হবে। তাকে নিয়ে গৌরবে গৌরবান্বিত হবেন। নিজের সন্তানকে নিয়ে যিনি এতো ভাবেন, একজন প্রতিষ্ঠিত মানুষ হিসেবে গড়তে চান, তার সাথে বন্ধুত্বের সেতু বন্ধনই প্রয়োজন ছিল। কিন্তু আজ শিক্ষক থেকে ছাত্র দূরে সরে যাচ্ছে আর অভিভাবকরা থাকছেন পিছন ফিরে। আবার আইনের জঠিলতায় হাতে শিখল পরাচ্ছেন কখনও কখনও।

শিক্ষককে শিক্ষা দানে সহযোগিতার বদলে ছাত্র কোথায় আঘাত পেল অন্তরে নাকি শরীলে তার খোঁজ খবর রাখতেই ব্যাতিব্যস্ত।

ছাত্র যতদিন ছাত্রত্বের আচরণে না আববে, শিক্ষক যতদিন প্রকৃত শিক্ষা দানে না ফিরবেন, অভিভাবক যতদিন না সন্তানের যথাযথ খোঁজ রাখবেন ততোদিন শিক্ষা ব্যবস্থার রূপ ভাঙা সেতুর মতোই আকার ধারণ করবে।

লেখক
প্রভাষক (অর্থনীতি)
শাহজালাল কলেজ 
জগন্নাথপুর, সুনামগঞ্জ।

Facebook Comments


শিরোনাম
মহেশপুরে ভুট্টা ফসলের উপর মাঠ দিবস পালন। অন্যদৃষ্টি শামছুল হুদা খাঁন কলেজের বিদ্যুৎ বিলে ২০০০ টাকা জরিমানা পোরশায় বে-সরকারী শিক্ষকদের মানববন্ধন অতিরিক্ত ৪% কর্তনের প্রজ্ঞাপন বাতিল না করলে ০১ মে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অবিরাম ধর্মঘট: বাশিস কুষ্টিয়ার মিরপুরে কৃষক সাইফুলের প্রায় ২ দুই লক্ষ টাকার কৃষি ফসলের ক্ষতি করেছে দূরবৃত্তরা অতিরিক্ত ৪% কর্তন আদেশের প্রতিবাদে সারাদেশে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ ডাইনিংয়ের খাবারে অনাস্থা, ক্যান্টিন চালুর দাবি শিক্ষার্থীদের ঝিনাইদহে যৌন হয়রানি রোধে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে র‌্যালি  ঝিনাইদহে যানবাহন থেকে অর্ধশত হাইড্রোলিক হর্ন জব্দ ঝিনাইদহে ফুটপাত দখল করে জমজমাট বালির ব্যবসা পথচারীদের ভোগান্তি জাতীয়করণ ছাড়া বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন সম্ভব নয়! বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন থেকে অতিরিক্ত ৪% কর্তনের প্রাসঙ্গিকতা ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ান না গাজীপুর শিক্ষা কর্মকর্তা রেবেকা এমপিও নীতিমালা ২০১৮ কতটা বাস্তবসম্মত? ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এক যুবক নিহত খালেদা জিয়া , কণ্ঠ-মনোবলে ৯০ দশকের দৃঢ়তা প্রাথমিকে চালু হচ্ছে ধারাবাহিক মূল্যায়ণ ৪% অতিরিক্ত কর্তন করা হলে তালা ঝুলিয়ে রাজপথে অবস্থান নিতে বাধ্য হবে শিক্ষক-কর্মচারীগণ মহেশপুর সোনালী ব্যাংক থেকে ৯৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নিল এক প্রতারক রাঙ্গুনিয়ায় ঐতিহাসিক মুজিব নগর সরকার দিবস  উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস শার্শায় আবারও ম্যাস হিস্ট্রোরিয়া আক্রান্ত হয়ে শিক্ষকসহ ১৯ শিক্ষার্থী অসুস্থ্য নুসরাত, বিপন্ন মানবতা! শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় সরকারি কোষাগারে জমা করে অর্থ সমস্যার সমাধান করুন ১২ এপ্রিল প্রথম দফার ভোটেই মোদির ভরাডুবি! 
© All rights reserved © 2017 Onnodristy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com