নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
০১ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৬ অপরাহ্ন

শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কর্মকর্তার হুমকির অভিযোগে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির বিবৃতি

ফয়সাল হাবিব সানি, স্টাফ রিপোর্টার
বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন
শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কর্মকর্তার হুমকির অভিযোগে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির বিবৃতি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার থেকে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত সদস্য মোঃ নজরুল ইসলাম হীরা কর্তৃক শিক্ষকদের হুমকির অভিযোগে তীব্র নিন্দা  জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষক সমিতি।

এ বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. হাসিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ রকিবুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। এসময় বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ডিন মোঃ আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আব্দুর রহিম খান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত প্রক্টর ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোঃ রাজিউর রহমানকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার ও কম্পিউটার চুরির ঘটনায় গঠিত সাত সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি থেকে সদ্য অব্যাহতিপ্রাপ্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার মোঃ নজরুল ইসলাম হীরা কর্তৃক নানান ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও দেখে নেওয়ার হুমকির অভিযোগে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।

এছাড়াও, বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয় যে, বিশ্ববিদ্যালয় হলো একটি সার্বজনীন প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা হলো এর প্রাণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্বকীয়তা, জাতির ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে গৌরবময় ভূমিকাই তাদেরকে একটি অনিবার্য সত্তাই রূপান্তরিত করেছে। এভাবেই শিক্ষক সত্তার মর্যাদা সকল দেশ ও সমাজে প্রতিষ্ঠিত ও স্বীকৃত হয়েছে। শিক্ষকদের জ্ঞান চর্চার পরিবেশ যাতে বাধামুক্ত থাকে, সে লক্ষ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের নিয়োগ দেন শিক্ষার অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখতে। এভাবে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সমন্বয়ে  বিশ্ববিদ্যালয় একটি নিবিড় জ্ঞানচর্চার প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়। এখানে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সহায়ক শক্তি, কোনোভাবেই পরিপূরক বা প্রতিপক্ষ নয়।

জানতে পারা যায়, কম্পিউার চুরির সঙ্গে সম্পৃক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মাসরুল ইসলাম পনি’র সাথে ঘণিষ্ঠতার অভিযোগ ওঠে তদন্ত কমিটি থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত ওই সহকারী রেজিস্ট্রারের। আর এতে করেই তদন্ত কমিটিকে সকল প্রকার প্রশ্নের ঊর্ধ্বে রাখতে গঠিত তদন্ত কমিটির অন্যান্য সদস্যের মতামতের ভিত্তিতে তাকে গত ১৮ আগস্ট (মঙ্গলবার) তদন্ত কমিটি থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়। ওইদিন দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বার্তায় এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। আর এরপর থেকেই শিক্ষকদের নানা রকম ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও দেখে নেওয়ার হুমকির অভিযোগ ওঠে মোঃ নজরুল ইসলাম হীরার বিরুদ্ধে। এমনকি শিক্ষকদের সঙ্গে তার উগ্রস্বরে কথা বলার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে সমালোচনার দাগ কাটে।

তবে শুরুর থেকেই তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগকে বানোয়াট, মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রোণোদিত আখ্যা দিয়ে দাবি করে আসছেন মোঃ নজরুল ইসলাম হীরা। সকল অভিযোগকে অস্বীকার করে তিনি বলেছেন, কোনো চোরের সঙ্গে আমার ঘণিষ্ঠতা কিংবা সম্পৃক্ততা নেই। অন্যদিকে, চোরদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রেও আমি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ প্রশাসনকে সবসময়ই সহযোগিতা করে আসছি। কোনো একটা মহল আমার ব্যক্তিগত সম্মান চরিতার্থ ও ক্ষুণ্ন করার নিমিত্তে আমার বিরুদ্ধে এ সকল অভিযোগ টেনে নিয়ে আসছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুলাই (রবিবার) পবিত্র ইদুল আজহার ছুটিকালীন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার থেকে (একুশে লাইব্রেরি ভবন) ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটে। এদিকে, চুরির বিষয়টি গত ৯ আগস্ট (রবিবার) বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হলে ১০ আগস্ট (সোমবার) চুরির বিষয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশি অভিযানে গত ১৩ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) রাজধানীর বনানী এলাকার `হোটেল ক্রিস্টাল ইন’ থেকে ৪৯টি কম্পিউটারের মধ্যে ৩৪টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয় এবং এর সাথে জড়িত মোট সাতজনকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয় পুলিশ।

উল্লেখ করা সমীচীন যে , এর আগেও বিশ্ববিদ্যালয়ে একাধিকবার কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু প্রতিবারই যেন কম্পিউটার চুরির প্রধান নাটের গুরু রয়ে গেছেন লোকচক্ষুর অন্তরালে! তাছাড়াও, এর পূর্বে ২০১৮ সালে ৪৭টি এবং ২০১৭ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫০টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা সংঘটিত হয়েছিলো।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো সংবাদ