নোটিশ :
সংবাদকর্মী নিচ্ছে অন্যদৃষ্টি। আগ্রহীগন সিভি পাঠান- 0nnodrisrtynews@gmail.com
০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১৮ অপরাহ্ন

পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করতে হলে ইরানকে অর্থনৈতিক সুবিধা দেয়া উচিত: বোরেল

অন্যদৃষ্টি ডেস্ক
বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ১০:০৩ পূর্বাহ্ন
ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল বলেছেন, ২০১৫ সালের পরমাণু সমঝোতা অনুযায়ী যদি ইরানের পরমাণু কর্মসূচির ওপর সীমাবদ্ধতা আনতে হয় তাহলে দেশটির অর্থনৈতিক সুবিধা পাওয়া উচিত।

গত ১৬ নভেম্বর টাইম ম্যাগাজিনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। জোসেফ বোরেল বলেন, এটি শুধু পরমাণু চুক্তি নয়, এটি অর্থনৈতিক চুক্তিও বটে। ইরান প্রত্যাশা করে তার পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করার জন্য বিনিময় থাকতে হবে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের এ শীর্ষ কূটনীতিক বলেন, ইরানের সঙ্গে সমঝোতার কোনো বিকল্প নেই। তেহরানের পরমাণু কর্মসূচি শান্তিপূর্ণ পথে রাখার একমাত্র গ্যারান্টি হচ্ছে এই সমঝোতা।

২০১৫ সালে ইরান এবং ছয় জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে পরমাণু সমঝোতা সই হয়। এতে ছয় জাতিগোষ্ঠীর পক্ষে আমেরিকাও সই করেছিল কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর ২০১৮ সালের মে মাসে এই সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নেন। এরপর ইরানের ওপর মার্কিন সরকার অবৈধভাবে একতরফা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে ইরানও পরমাণু সমঝোতার বেশ কয়েকটি ধারা বাস্তবায়ন স্থগিত রাখে।

এখন আমেরিকায় ক্ষমতার পালাবদলের কারণে মনে করা হচ্ছে আমেরিকা নতুন করে পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসবে। এ প্রেক্ষাপটে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান ইরানের অর্থনৈতিক সুবিধা পাওয়ার পক্ষে কথা বললেন। ট্রাম্প প্রশাসন পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে ইউরোপ তার বিপরীতে অবস্থান নেয়। সূত্র : পার্সটুডে

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো সংবাদ